করোনা আক্রান্ত মা যতক্ষণ বেঁচে রইলেন, হাসপাতালের জানলায় বসে রইল ছেলে!‌

করো’না ভাইরাস সব পাল্টে দিয়েছে। পরিবার, পরিজন, আ'ত্মীয়, বন্ধুর স'ঙ্গে বিচ্ছিন'্ন করে দিয়েছে এই মা'রণ ব্যাধি। দেখা করার উপায় তো নেই‌–ই, এমনকি অসুস্থ, মৃ'ত পরিজনকেও দেখার উপায় নেই কারওর। অদেখাতেই বিদায় জানাতে হচ্ছে সবাইকে। কিন্তু তবু, কোথাও যেন র'ক্তের সম্পর্ক আলাদা হয়ে যায় সব কিছু থেকে। ঠিক যেমন এক্ষেত্রে ঘটল।

ঘটনাটি ঘটেছে প্যালেস্তাইনে। একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, যেখানে দেখা যাচ্ছে, হাসপাতালে কয়েকতলা ওপরে কাচের দেওয়ালের পাশে ভিতরের দিকে তাকিয়ে বসে আছেন এক ব্যক্তি। বয়স বেশি নয়। কিন্তু কেন এমন হাসপাতালের জানলার পাশে বসে আছেন তিনি?‌ সেই বি'ষয়ের সন্ধান করতেই বেরিয়ে এসেছে অবাক করা তথ্য।

ওই ব্যাক্তির নাম জিহাদ আল সুয়াইতি। বয়স ৩০। তাঁর মা করো’না আ'ক্রা'ন্ত হয়ে এই হাসপাতালেই ভর্তি রয়েছেন। সরকারি হাসপাতালের ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিটে ভর্তি মা–কে দেখতে যাওয়ার অনুমতি স্বাভাবিকভাবেই পায়নি ছেলে। তাই সে অ’পেক্ষা করেছে জানলার পাশে বসে। শেষ সময়ে মায়ের কাছ থেকে সরে যেতে চায়নি। জানলা দিয়েই সে দেখেছে, মা মৃ'ত্যুর কোলে ঢলে পড়ছে। যতদিন মা হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন, ততদিন রোজ রাতে ওই জানলার ধারে বসে থাকতেন এই যুবক। মহম্ম'দ সাফা (‌Mohamad Safa)‌ নামে একজন এই ছবিটি শেয়ার করে লিখেছেন এই বি'ষয়টি।

করো’না আ'ক্রা'ন্ত মায়ের আগে থেকেই ছিল লিউকোমিয়া। পাঁচদিন তাঁকে ভর্তি থাকতে হয়েছিল হাসপাতালে। সেই যুবক সন্তান পরে জানিয়েছেন, আমা'র অসহায় লাগতো। তাই হাসপাতালের জানলার ধারে বসে থাকতাম। মাকে দেখতে।

Facebook Comments

Related Articles

Back to top button