এরদোগানকে ‘খাদেমুল হারামাইন’ হিসেবে দেখতে চান মাওলানা সালমান নদভী

ইস্তাম্বুলের ঐতিহাসিক স্থাপনা আয়া সোফিয়াকে পুনরায় মসজিদে রূপান্তরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রখ্যাত আলেম ও আন্তর্জাতিক ইসলামিক স্কলার মাওলানা সালমান নদভী। তিনি এই মুহূর্তকে তুর্কি জনগণ ও সমগ্র মুসলিম উম্মাহর জন্য বিশেষ আনন্দের সময় আখ্যায়িত করেছেন। সম্প্রতি নিজের ফেরিফাইড ফেসবুক পেজে শেয়ার করা এক ভিডিওতে আয়া সোফিয়াকে ফের মসজিদ ঘোষণা করার পর তিনি এই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

মাওলানা নদভী বলেন, মুসলিম উম্মাহর প্রতি উসমানী খেলাফতের যে দায়িত্ব ছিল, এরদোগানের নেতৃত্বাধীন তুরস্কের বর্তমান সরকার সেই দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করছে; তারা শামের মুসলমানদের খেদমত করছে, লিবিয়ান ও ইরাকি মজলুম মুসলমানদের পাশে দাঁড়িয়েছে। এরদোগান- সরকারের লক্ষ্য হলো- গোটা বিশ্বের মুসলমানদের সুরক্ষা প্রদান করা, আর এক্ষেত্রে তারা কঠোর পরিশ্রমও করে যাচ্ছে বলে মাওলানা সালমান নদভী মনে করেন।

তিনি বলেন, এরই ফলাফল হল, আয়া সোফিয়াকে তার পুরনো ও আসল পরিচয়ে ফিরিয়ে আনা। তার দাবি- এরপরও সৌদি সমর'’্থনপুষ্ট কতক নামধারী সালাফি আলেম তুরস্কের ওপর নানা অ’পপ্রচার চালাচ্ছে। মাওলানা সালমান নদভী বলেন, ‘ইহুদি’ কামাল পাশা তো তুরস্ককে ইসলাম থেকে আলাদা করে দিয়েছিল, তুরস্কের ইসলামি পরিচয় বিলু’'প্ত করে দিয়েছিল- এজন্য এখন তো সবচেয়ে মুজাদ্দিদানা ও সংশোধন মূলক কাজ হলো,

তুরস্কের হারানো পরিচয় ফিরিয়ে আনা। উপমহাদেশের প্রখ্যাত এই আলেম মনে করেন, আর এজন্য মহান আল্লাহ তায়ালা রজব তাইয়িব এরদোগানকে নির্বাচন করেছেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, হয়তো সেইদিন বেশি দূরে নয়- এরদোগান নিজ কর্ম’দক্ষতা ও অর্জনের মাধ্যমে আগামীতে এমন একটা পর্যায়ে উপনীত হবেন- সুলতান সালিম উসমানী যেভাবে খাদেমুল হারামাইনিশ শারিফাইন নির্বাচিত হয়েছিলেন- ঠিক তেমনি আল্লাহ তার ভাগ্যে এটি লিখে দেন যে, তিনিও আগামীর খাদেমুল হারামাইনিশ শারিফাইন ‘'হতে পারেন।

Facebook Comments

Related Articles

Back to top button