থানায় আট'কে দেড় কোটি টাকার চেক নিলেন পরিদর্শক!

বিশ্বা’স করে চাচাতো ভাইয়ের ব্যাংক লোনের গ্যারান্টার হয়েছিলেন মহিউদ্দিন (৫২)। সেই ভাই মাহবুব আলম সময় মতো লোন পরিশোধ না করায় ব্যাংক মাহবুবের বি’রু'দ্ধে মা’মলা করে। এই মা’মলার ভয় দেখিয়ে মাহবুব ক্রমাগত মহিউদ্দিনের কাছ থেকে টাকা নেয়ার চেষ্টা করেন।

এতে অসফল হলে কুমিল্লা মডেল থা'নার পরিদর্শক (ত’দন্ত) সালাউদ্দিনের যোগসাজশে মহিউদ্দিনকে থা'নায় তুলে এনে জো’র করে দেড় কোটি টাকার চেক লিখিয়ে নেন।

এ ঘটনায় মহিউদ্দিন বাদী হয়ে সরাসরি আ’দালতে মা’মলা করেছেন। আ’দালত রবিবার (১ ডিসেম্বর) মা’মলা’টি আমলে নিয়ে পু’লিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) ত’দন্তের নিরদেশ দিয়েছেন।

পরিদর্শক সালাহউদ্দিনের বি’রু'দ্ধে অ’ভিযোগ স’ম্পর্কে ভুক্তভোগী মহিউদ্দিন বলেন, ‘থা'নায় তুলে নেওয়া পর দেড় কোটি টাকার চেক মাহাবুবের জন্য আ'দায় করতে পরিদর্শক সালাউদ্দিন আমাকে হু’মকি, মিথ্যা মা’মলার ভয় এবং নানা চাপ প্রয়োগ করেন। ঘটনার পর জে’লা পু’লিশ সুপারের বরাবর আমি অ’ভিযোগ করেছি। এরপর আ’দালতে মা’মলা দায়ের করি।’

অ’ভিযোগের বি'ষয়ে জানতে চাইলে পরিদর্শক ত’দন্ত মো. সালাহউদ্দিন এ ঘটনার স''ঙ্গে তার সম্পৃক্ততা অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘চেকের সমস্যা বাদির চাচাতো ভাই মাহাবুবের স''ঙ্গে। এখানে আমি জ’ড়িত নই। মা’মলার বি'ষয়ে এখনো আমি আ’দালত থেকে কোনো কাগজপত্র পাইনি।’