সিনহা হ’ত্যা : যে কারণে ৩ পুলিশকে রিমা’ন্ডে নিতে দেরি

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রা'প্ত মেজর সিনহা মোহা'ম্ম'দ রাশেদ খান হ'ত্যা মা'মলায় আ'সামি ওসি প্রদীপ কুমা'র দাশসহ তিন আ'সামিকে গতকাল শুক্রবার রাত পর্যন্ত জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিজেদের হেফাজতে নিতে পারেনি র‌্যাব'।

কক্সবাজারের আ'দালত বৃহস্পতিবার আ'ত্মসমর'্পণ করা সাত আ'সামির মধ্যে তিনজনকে সাত দিনের রি'মান্ড এবং অন্য চারজনকে দুই দিন করে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন ত'দন্তকারী সংস্থা র‌্যাব'কে। আ'ত্মসমর'্পণ না করা হ'ত্যা মা'মলাটির আরো দুই আ'সামির ওপর গ্রে''প্ত ারি পরোয়ানা জারি হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে আ'দালতের কার্যক্রম শেষ হওয়ার পর রাত ১০টার দিকে সাত আ'সামিকে কক্সবাজার কারা'গারে নিয়ে যাওয়া হয়।

রি'মান্ডের জন্য আ'সামিদের হস্তান্তর না করার কারণ হিসেবে কক্সবাজার কারা' ক'র্তৃপক্ষ বলেছে, আ'দালতের আদেশ তাদের কাছে না পৌঁছানোয় তারা কোনো পদ'ক্ষেপ নিতে পারেনি। এদিকে ওসি প্রদীপসহ টেকনাফ থানার ৭ পুলিশ সদস্যকে গতকাল বরখাস্ত করা হয়েছে।

এদিকে পুলিশ সদর দ'প্ত র সূত্রে গতকাল জানা গেছে, আ'ত্মসমর'্পণ করা সাত আ'সামিকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এর আগে মা'মলা হওয়ার পর তাঁদের দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছিল।

গতকাল সকালে কক্সবাজার র‌্যাব'-১৫-এর উপ-অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আ'দালতের আদেশপ্রা'প্ত হয়ে আ'সামিদের বি'ষয়ে প্রক্রিয়া অনুযায়ী আমর'া কাজ শুরু করেছি।’ অন্যদিকে গতকাল সন্ধ্যায় কক্সবাজার কারা'গারের তত্ত্বাবধায়ক মোজাম্মেল হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমি আ'দালতের নির্দেশনার খবর শুনেছি। তবে এখনো আমা'র কাছে অফিশিয়াল কোনো চিঠি বা নির্দেশনা এসে পৌঁছেনি। নির্দেশনা না এলে আমা'র করার কিছুই নেই।’

Facebook Comments

Related Articles

Back to top button