মাদ্রাসা ছাত্র থেকে সেলুনের চাকরি তারপর যে ভাবে টিকটক তারকা হয় অপু ভাই

টিকটকের মতো অ্যাপে রাতারাতি খ্যাতি পাচ্ছেন উঠতি বয়সীরা। গড়ে উঠছে কিশোর অনুসারীদের বিশাল বাহিনী। ধীরে ধীরে গ্যাং' সংস্কৃতির দিকে ঝুঁকছেন তারা, বাড়ছে অ’পরাধ প্রবণতা। রাজধানীর সড়কে গোলমালের অ'ভিযোগে টিকটক তারকা অ’পু গ্রে'ফতারের পর এমনই বলছে পুলিশ। বিশেষজ্ঞরাও একমত।

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর মা'দ্রাসাছাত্র ইয়াছিন' আরাফাত অ’পু। অভাবের কারণে পড়াশোনা করতে পারেনি বেশী দূর। এরপর চাকরি নেন একটি সেলুনে। সেখান থেকে কয়েকজন বন্ধুর মাধ্যমে জানতে পারে মোবাইলভিত্তিক অ্যাপস টিকটক ও লাইকি সম্পর্কে।

এরপর টিকটক ও লাইকিতে নানা ভিডিও তৈরি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করে অল্প দিনেই অর্জন করেন জনপ্রিয়তা। গড়ে তোলেন অনুসারীদের বিরাট বাহিনী।

২ মাসেই আয় করেন ৫০ হাজার টাকা। নতুন ভিডিও বানাতে ২ আগস্ট অনুসারীদের নিয়ে ঢাকায় আসেন অ’পু।
পুলিশ বলছে, উশৃঙ্খল আচরণে কিশোর গ্যাং' সংস্কৃতিকে উৎসাহ দিচ্ছিলো তারা।

উত্তরা উপ-কমিশনার নাবিদ কামাল শৈবাল বলেন, তার স'ঙ্গীরা কিশোর গ্যাং' হিসেবে নিজেদেরকে প্রকাশ করার জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল। মা'দকের সাথে তারা জড়িত কিনা খতিয়ে দেখছি।

রাজধানীর উত্তরায় সড়কে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি ও মা'রধরের অ'ভিযোগে রোববার দায়ের করা মা'মলায় সোমবার (৩ আগস্ট) অ’পুকে গ্রে'ফতার করে পুলিশ।

Facebook Comments

Related Articles

Back to top button